ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১

চুরি হওয়া জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ফিরিয়ে দিলো চোর, রেখে গেল চিঠি

বিনোদন ডেস্ক

 প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০২৪, ০৬:১০ বিকাল  

ছবি সংগৃহীত

কিছুদিন আগেই বাড়ি থেকে চুরি হয়ে যায় জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগও দায়ের করেন পরিচালক। কিন্তু কী অদ্ভুত ব্যাপার। সেই পুরস্কার আবার ফিরিয়ে দিয়ে গেছে চোর। সঙ্গে একটি চিঠিও রেখে গেছে। তাতে ক্ষমা চেয়েছে চোর। এমনই ঘটনা ঘটেছে তামিলনাড়ুর মাদুরাই জেলার তামিল সিনেমা ইন্ডাস্ট্রির পরিচালক এম মণিকন্দনের সঙ্গে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবর, পরিচালক মণিকন্দন যখন মাদুরাইতে তার উসিলামপট্টির বাড়িতে চুরির ঘটনা সম্পর্কে জানতে পারেন তখন বেশ অবাক হয়েছিলেন। শুটিংয়ের কারণে গত দু’মাস ধরে উসিলামপট্টিতে রয়েছেন। সঙ্গে পরিবারের সদস্যরাও থাকছেন। আর এমন সময় কিনা চুরির ঘটনা ঘটে।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি বাড়ি ফিরে পরিচালক দেখতে পান, ঘরের দরজা ভেঙে ভেতর থেকে কেউ চুরি করেছে। জাতীয় পুরস্কার নেই। পুরস্কারের দুটি রুপার পদকসহ স্বর্ণের গয়না, নগদ এক লাখ টাকা ও অন্যান্য মূল্যবান জিনিস নিয়ে গেছে চোর। ‘কড়াইসি ভিবাসায়ি’ সিনেমা পরিচালনার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের কাছ থেকে পুরস্কারগুলো পেয়েছিলেন এ পরিচালক।

পরিচালক মণিকন্দ থানায় অভিযোগ দায়েরের পর বিষয়টি আলোচনায় উঠে আসে। এর কিছুদিন পর জাতীয় পুরস্কারের মেডেলে রেখে যায় চোর। একটি পলির ব্যাগে মেডেল দুটি ফেরত রেখে যায়। ব্যাগটি বাড়ির বাইরে ঝুলিয়ে রাখা ছিল। আর চিঠিতে লেখা ছিল―স্যার, আমাদের ক্ষমা করবেন। আপনার কঠিন পরিশ্রমের ফসল ফিরিয়ে দিয়ে গেলাম আপনাকে।

এদিকে চোর জাতীয় পুরস্কার ফিরিয়ে দিলেও স্বর্ণের গয়না, নগদ টাকা ও অন্যান্য মূল্যবান জিনিসপত্র দেয়নি। আর এ ঘটনায় এখনো কাউকে গ্রেপ্তারও করেনি পুলিশ।

প্রসঙ্গত, ‘কাকা মুত্তাই’ দিয়ে ফিচার ফিল্মের ক্যারিয়ার শুরু করেন মণিকন্দন। সেরা শর্ট ফিল্মের জন্য জাতীয় পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন তিনি। এর আগে ‘কুটরাম ঠাণ্ডানাই’ ও ‘আনন্দবন কাট্টলাই’র মতো সিনেমা পরিচালনা করে প্রতিভাবান পরিচালক হিসেবে খ্যাতি লাভ করেন তিনি। আবার শেষ সিনেমা ‘কাদাইসি বিভাসায়ি’ সেরা ফিচার ফিল্মের জন্য নির্বাচিত হলেও জাতীয় পুরস্কার পান। বর্তমানে ডিজনি প্লাস হটস্টারের জন্য একটি ওয়েব সিরিজ পরিচালনা করছেন মণিকন্দন।